মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বাণী

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পথে এগিয়ে যাওয়ার ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকার জাতীয় পোর্টাল ফ্রেমওয়ার্কের আওতায় দেশের প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে শুরু করে উপজেলা, জেলা এবং সর্বোপরি সারাদেশকে একই সুতোয় গেঁথেছেন। জাতীয় পোর্টাল ফ্রেমওয়ার্ক দেশের একটি বিশাল তথ্য ভান্ডার। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য হচ্ছে ‘জনগণের দোড়গোড়ায় সেবা’ (Service at Doorsteps) পৌছে দেয়া। আর এ ম্লোগানকে সামনে রেখেই দেশের প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে ইউআইএসসির যাত্রা শুরু হয়। ইউআইএসসি প্রতিষ্ঠার ফলে সমাজ ও রাষ্ট্র ব্যবস্থার প্রতিটি ক্ষেত্রে একটি অবাধ তথ্য প্রবাহ সৃষ্টি করা সম্ভবপরহয়েছে, যেখানে মানুষকে আরসেবার জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হচ্ছে না, বরং সেবাই পৌঁছে যাচ্ছেমানুষেরদোরগোড়ায়। অবাধ তথ্য প্রবাহ জনগনের ক্ষমতায়নের অন্যতম পূর্বশর্ত। দেশের ৪,৫০১টি ইউনিয়ন পরিষদে তথ্য ও সেবাকেন্দ্র স্থাপনের ফলে গ্রামীণ জনগণের অবাধ তথ্য প্রবাহে অংশগ্রহণসহ দ্রুততম সময়ে তথ্য ও সেবা পাওয়ার পথ সুগম হয়েছে। এর ফলে সারা দেশের মত সরাইলের গ্রামীণ জনজীবনেও এর ছোয়া লাগবে। গড়ে উঠবে একটি ডিজিটাল উপজেলা।

 

ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন সরাইল উপজেলা। বেশ প্রাচীন একটি জনপদ এই সরাইল। প্রাচীনযুগে ঈসা খাঁ, বৃটিশ আমলে বিপ্লবী উল্লাসকর দত্ত এবং স্বাধীনতা যুদ্ধকালে দেওয়ান মাহবুব আলী (কুতুব মিয়া) এর মত ব্যক্তিত্বদের স্মৃতি বিজড়িত এই সরাইল নানা কারণে এদেশের মানুষের কাছে পরিচিত একটি জনপদ। বিখ্যাত গ্রে হাউন্ড কুকুর এবং হাঁসলি জাতের মোরগ এখনো সরাইলের সুনাম ধরে রেখেছে। বর্ষাকালের অপরাহ্নে ধরন্তী ঘাটের অপরূপ মনোমুগ্ধকর দৃশ্য সরাইলকে বর্তমানে দিয়েছে আলাদা পরিচিতি।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অন্যান্য এলাকার মত সরাইল উপজেলাটিও একটি নিচু সম ভূমি। এখানকার বেশির ভাগ মানুষই কৃষক। দু'ফসলা কৃষিজমিগুলো যকনবর্ষাকালে পানির নিচে তলিয়ে যায় তখন সাধারণ কৃষকরাও জেলে বেশে মাছ ধরার কাজে মনোনিবেশ করে। প্রাকৃতিক জলাভূমি, হাওর এবং বিলে পাওয়া যায় প্রচুর দেশী জাতের মাছ। যার মধ্যে রয়েছে শিং, মাগুর, কৈ, টাকি, শোল, বোয়াল, ভেটকি, টেংরা। ফলত এখানে জেলে পেশাজীবির মানুষদের বসবাসও চোখে পড়ে। উপজেলাটি জেলা সদর সংলগ্ন হওয়ায় ব্যবসা-বাণিজ্য এবং শিক্ষায়ও এলাকার মানুষ বেশ এগিয়ে। তবে উপজেলার বেশিরভাগ হাওর বেষ্টিত হওয়ায় মানুষকে এক ফসলা কৃষি নির্ভর হয়ে জীবন যাপন করতে হয়। ফলত অত্র এলাকার অর্থনৈতিক অবস্থা দূর্বল। ফলে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এখনও শিক্ষার আলো সেভাবে পৌছায়নি। এসকল এলাকার সাধারণ মানুষ খুবই সাদামাটা জীবন যাপন করে থাকে। তারা সহজ-সরল এবং আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এ উপজেলার মানুষের জীবনযাত্রার মান  উন্নয়নে শিক্ষা ক্ষেত্রে জরুরী প্রয়াস প্রয়োজন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের রূপকল্প ভিশন 2021 বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই অঞ্চলের সকল সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান অক্লান্ত প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখে চলেছে যা সকলের সম্মিলিত উদ্যোগের মাধ্যমে  একটি সুষ্ঠু, সুন্দর, সন্ত্রাসমুক্ত, উন্নয়নমুখী আলোকিত সরাইল গড়ে তুলতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।